উম্মাদ – আরাফাত রহমান

তুমি চলে যেওনা প্রিয়তমা
তোমারি চোখের জলে ভাসবো আমি
ভেসে যাব দূর অজানায় , তবুও বলবনা তোমাকেই ভালোবাসি
জানি তুমি আমার , আমি তোমারি

তুমি ছিলে হৃদয়ের মাঝখানে
আছো তুমি প্রতিটি শিহরনে
স্নিগ্ধ মন চায় সারাক্ষণ শুধু তোমাকে

তুমি ছিলে স্বপ্নের অন্তরালে , রয়েছো তুমি কল্পনার
সন্দিক্ষনে , অবুঝ মন চায় সারাবেলা শুধু তোমাকে


সূত্রঃ নিজের অজান্তে

আনন্দ নগর – রাশেদ সাইফুল

শেষ রাতে গলির ধারে
পড়বে না আর কোন লাশ।
থাকবে না কোন মায়ের
সন্তান হারানোর হা-হুতাশ।
নতুন রবি উঠছে আজ
হতাশার চাঁদর ছিঁড়ে।।

দূরের পাখি আসে উড়ে
গাইবে আজ নতুন সুরে।
থেকো না আজ বসে ঘরে
এসো সবাই মিলে
আনন্দ নগরে…।।

হাত পেতে পথের ‘পড়ে
ভাত চাইবে না কোন শিশু।
ভালবাসায় তারা উঠবে বেরে
ছুটবে আজ স্বপ্নের পিছু।
স্বপ্ন গাড়ি আসছে আজ
আগামীর চিঠি নিয়ে।।

ব্যর্থ ক্রোধে কবির কলম
থামাবে না আজকে কেউ।
উঠবে আজ প্রাণের জোয়ার
অদম্য তারুণ্যের ঢেউ।
ঐ যে দেখ বিজয় নিশাণ
উড়ছে স্বপ্নের প্রান্তরে।


সূত্রঃ নিজের অজান্তে

বুলেট শপথ – রাশেদ সাইফুল

ঘুনে ধরা, এই রিক্ত সমাজ
জানছে সবাই, ভ্রান্তির ইতিহাস।
মুখোস পড়ে নেকড়ের দল
করছে আজ, ক্ষমতার উল্লাস।।

বুলেট শপথ নিলাম আজ
ছিন্ন করব তাদের বুক।
মুখোসের আড়ালে যাদের আজ
লুকিয়ে থাকে হায়েনার মুখ।।

পতাকার সম্মান লুণ্ঠিত আজ
অতৃপ্ত শহীদ আত্মার অভিশাপ।
খোলা দরকার ওদের, ভন্ডামীর লেবাস
শোনা যায় ওদের, ক্রুর হাসির আওয়াজ।।

বিচার তোদের করব আজ
গলায় পড়াব করুন ফাঁস।
মরলে তোরা হাসবে আজ
কলঙ্কিত ইতিহাস।।


সূত্রঃ নিজের অজান্তে

কিছু বিষাদ কিছু দুঃখ – রাশেদ সাইফুল

কিছু বিষাদ কিছু দুঃখ
হতাশা হোক স্তব্ধ।
কিছু স্বপ্ন কিছু সুখ
মেঘের ভেলায় উড়ে আসুক।
বৃষ্টি হয়ে এ শহরের বুকে
অঝর ধারায় ঝরে পরুক।

কষ্টের যতো সুর
বিরহ সুমধুর।
অশ্রু অবিরত
হৃদয়ে নীল ক্ষত।।
প্রেমিকার দুটি চোখ
যেন ঐ সাগরের
নিস্তব্ধ বুক … ।

আজো এই শহরে
কতশত অপমান।
স্যাঁতস্যাঁতে দেয়ালে
চাঁপা পরা অভিমান।।
নিপীড়িত কিছু মুখ
চেয়ে থাকে চোখ মেলে
আকাশের ঐ নীলে… ।


সূত্রঃ নিজের অজান্তে


অধরা – আরাফাত রহমান

তোমাকে যখন আমি দেখেছিলাম প্রথমবার
ভাবিনি এমন হবে যা হয়নি কখনো আর।

বুঝিনি এই অবুজ মন চাইবে তোমাকে সারাক্ষণ
শুন্য এই মনে ভেসে বেড়াবে তোমার সৃতি প্রতিক্ষণ।

ভালোবাসি তোমার ওই চাঁদ মুখ হাঁসি
ভালোবাসি তোমার রাঙ্গা ঠোঁটের হাঁসি।

ভেবেছিলাম ভালোবাসি বলবো তোমাকে একবার
বলতে গিয়েও বলা হলোনা যে আর।

তবুও তোমার মাঝে ভাসি আমি
দু চোখের আড়ালে খুজি আমি
তোমায় অনেক ভালোবাসি আমি।


সূত্রঃ নিজের অজান্তে

প্রিয়তমা – আরফিন রুমি

তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা
তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা

পথের শুরু থেকে শেষে যাবো তোমায় ভালোবেসে
বুকে আছে তোমার জন্য অনেক কথা জমা

তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা
তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা

ভালোবাসি তোমায় কত, দেখো হৃদয় খুলে
রাঙিয়ে দেবো তোমার পাঁজর মনের রঙিন ফুলে
ভালোবাসি তোমায় কত, দেখো হৃদয় খুলে
রাঙিয়ে দেবো তোমার পাঁজর মনের রঙিন ফুলে

তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা
তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা

তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা
তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা

তোমায় দেখার শেষ হবেনা দুচোখ বোজার আগে
আকাশ হয়ে জড়িয়ে রবো গভীর অনুরাগে
তোমায় দেখার শেষ হবেনা দুচোখ বোজার আগে
আকাশ হয়ে জড়িয়ে রবো গভীর অনুরাগে

তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা
তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা

তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা
তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা

তোমার চোখে আকাশ আমার চাঁদ উজাড় পূর্ণিমা
ভেতর থেকে বলছে হৃদয় তুমি আমার প্রিয়তমা।


সূত্রঃ নিজের অজান্তে